Home » ইউক্রেনকে চাপ দিচ্ছে পশ্চিমারা

ইউক্রেনকে চাপ দিচ্ছে পশ্চিমারা

0 মন্তব্য 9 ভিউজ

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ বন্ধে মধ্যস্থতা করছে যুক্তরাষ্ট্র। বিশ্ব গণমাধ্যমে শোরগোল ফেলা এ গুঞ্জনের মধ্যেই রোববার বাজ ফেললেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলনস্কির শীর্ষ উপদেষ্টা মিখায়লো পোদোলিয়াক।

বললেন, রাশিয়ার সঙ্গে সমঝোতায় যেতে ইউক্রেনকে চাপ দিচ্ছে পশ্চিমা বিশ্ব। বার্তা সংস্থা এএফপিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে চাঞ্চল্যকর এ তথ্য দিলেন পোদোলিয়াক।

বলেছেন, পশ্চিমাদের প্রস্তাবটা ছিল এমন-‘আপনি সবকিছুই সামরিক উপায়ে করতে পারবেন না। আপনাকে আলোচনায় যেতে হবে।’ তিনি বলেন, ‘যখন যুদ্ধক্ষেত্রে আপনার উদ্যোগ থাকে তখন এ ধরনের প্রস্তাব বেশ উদ্ভট।’

তিনি এই পদক্ষেপকে আত্মসমর্পণের সমান বলে দাবি করেন। বলেন, এর অর্থ এই হবে, যে দেশ তার অঞ্চল পুনরুদ্ধার করেছে, তাকে বিজিত দেশের কাছে আত্মসমর্পণ করতে হবে।

যুক্তরাষ্ট্র প্রশাসন নানাভাবে সমঝোতার জন্য কিয়েভকে উৎসাহ করলেও জেলেনস্কি তা মানবেন না। রুশ দখলকৃত চার অঞ্চল (দনেৎস্ক, লুহানস্ক, খেরসন ও জাপোরিজঝিয়া) ফিরে না পেলে কোনো সমঝোতায় যাবে না ইউক্রেন।

পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে বিস্ফোরণ : ইউক্রেনের এক বিদ্যুৎকেন্দ্রে বিস্ফোরণ ঘটেছে। রোববার জাপোরিজঝিয়ায় এ ভয়াবহ বিস্ফোরণের কথা নিশ্চিত করেছে আন্তর্জাতিক পরমাণু শক্তি সংস্থা (আইইএ)।

এক বিবৃতিতে তারা জানান, ইউক্রেনের বৃহত্তম পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র শক্তিশালী বিস্ফোরণে কেঁপে উঠেছে। কেন্দ্র ও আশপাশে গোলাবর্ষণ হয়েছে বলেও মনে করা হচ্ছে। সকালে এক ডজনের বেশি বিস্ফোরণের শব্দ পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছেন আইইএ-এর বিশেষজ্ঞরা।

ইউক্রেনের দাবি, এর পেছনের কলকাঠি নাড়ছে রাশিয়া। ইতোমধ্যে দেশটির অধিকাংশ বিদ্যুৎকেন্দ্র রুশ হামলায় অকেজো হয়ে পড়ে।

আগামী মাসে ক্রিমিয়া পুনর্দখল : ডিসেম্বর মাসের শেষ নাগাদ রাশিয়ার সংযুক্ত অঞ্চল ক্রিমিয়া উপদ্বীপ পুনর্দখল হবে বলে দাবি করেছে ইউক্রেন। দেশটির উপ-প্রতিরক্ষামন্ত্রী ভ্লাদিমির গ্যাভরিলভ এই দাবি করেছেন।

শনিবার ব্রিটিশ গণমাধ্যম স্কাই নিউজের সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, তার দেশের সেনারা আগামী মাসে রাশিয়ার কাছ থেকে ক্রিমিয়া উপদ্বীপ দখল করে নিতে পারে।

গ্যাভরিলভ বলেন, ক্রিমিয়া ‘ব্ল্যাক সোয়ান’ হতে পারে এবং এই উপদ্বীপ দখলের মাধ্যমে অপ্রত্যাশিতভাবে বিজয় আসতে পারে।

তিনি দাবি করেন, রাশিয়ার ভেতর থেকেই এই ব্ল্যাক সোয়ানের উত্থান হতে পারে, যা ক্রিমিয়া বিজয়ে ইউক্রেনের জন্য ভূমিকা রাখতে পারে। এক্ষেত্রে সামরিক অপশনও রয়েছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

আরও পড়ুন

মতামত দিন

আমাদের সম্পর্কে

We’re a media company. We promise to tell you what’s new in the parts of modern life that matter. Lorem ipsum dolor sit amet, consectetur adipiscing elit. Ut elit tellus, luctus nec ullamcorper mattis, pulvinar dapibus leo. Sed consequat, leo eget bibendum Aa, augue velit.