Home » ইসরায়েলি ঘাঁটিতে হিজবুল্লাহর ক্ষেপণাস্ত্র ও ড্রোন হামলা

ইসরায়েলি ঘাঁটিতে হিজবুল্লাহর ক্ষেপণাস্ত্র ও ড্রোন হামলা

0 মন্তব্য 14 ভিউজ

লেবাননের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হিজবুল্লাহ ইসরাইলের উত্তরাঞ্চলের একটি সামরিক ঘাঁটিতে কয়েক ডজন কাতিউশা ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছে।
হিজবুল্লাহ জানিয়েছে, ইসরায়েলের হামলার জবাবে তাদের যোদ্ধারা নাবাতিয়েহ শহর এবং সোহমোর গ্রামে লক্ষ্য করে ইসরায়েলের উত্তরাঞ্চলীয় কমান্ডের প্রধান বিমান ও ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ঘাঁটিতে কয়েক ডজন কাতিউশা রকেট নিক্ষেপ করেছে।’
ইসরায়েলি গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, হিজবুল্লাহ রকেটের আঘাতে সাফাদের কাছে ইসরায়েলি সেনাদের আইন জেইটিম ঘাঁটিতে আগুন ধরে যায়। ইসরায়েলি সেনাবাহিনীর বিরইয়ার ব্যারাকের চারপাশে ব্যাপক মাত্রায় আগুন ধরে যায়।
একইদিন ভূমধ্যসাগরের উপকূলে ইসরায়েলি আল-নাকুরা নৌঘাঁটিতে বেশ কয়েকটি আত্মঘাতী ড্রোনের সাহায্যে হামলা চালিয়েছে হিজবুল্লাহ। এসময় বেশ কয়েকজন ইসরাইলি কর্মকর্তা ও সেনা হতাহত হয়েছে।
এদিকে, ইসরায়েলি সামরিক বাহিনী একটি বিবৃতিতে বলেছে, আনুমানিক ৩৫টি রকেট লেবানন থেকে ইসরায়েলে ঢুকেছে। এয়ার ডিফেন্স সফলভাবে বেশিরভাগ রকেট আটকে দিয়েছে। কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।
অন্যদিকে, শুক্রবার (২৮ জুন) সকালে বিরকাত রিশা এলাকায় ইসরায়েলের গুপ্তচরবৃত্তির সরঞ্জামগুলোকে লক্ষ্যবস্তু করে সরাসরি আঘাত হানে হিজবুল্লাহ। এছাড়া, শুক্রবার বিকেলে আল-তাইহাত ট্রায়াঙ্গেলের আশপাশে ইসরায়েলি সেনাদের একটি সমাবেশকে লক্ষ্য করে রকেট দিয়ে সরাসরি আঘাত হানা হয় বলে সংগঠনটি জানিয়েছে।
গত ৭ অক্টোবর থেকে গাজা উপত্যকায় ইসরাইলি নৃশংস অভিযান শুরু হওয়ার পর থেকে লেবানন-ইসরাইল সীমান্তে নিয়মিত গোলা বিনিময় চলছে। হিজবুল্লাহর সিনিয়র কমান্ডার সামি তালেব আবদুল্লাহকে ইসরায়েলি বাহিনী হত্যা করার পর থেকে গুলি বিনিময় তীব্রতর হয়েছে।

আরও পড়ুন

মতামত দিন


The reCAPTCHA verification period has expired. Please reload the page.

আমাদের সম্পর্কে

We’re a media company. We promise to tell you what’s new in the parts of modern life that matter. Lorem ipsum dolor sit amet, consectetur adipiscing elit. Ut elit tellus, luctus nec ullamcorper mattis, pulvinar dapibus leo. Sed consequat, leo eget bibendum Aa, augue velit.