Home » বিএনপিকে আর মাঠ দখলের সুযোগ নয়: আওয়ামী লীগ

বিএনপিকে আর মাঠ দখলের সুযোগ নয়: আওয়ামী লীগ

0 মন্তব্য 67 ভিউজ

দলীয় সরকারের অধীনেই বিএনপিকে নির্বাচনে আনতে চায় আওয়ামী লীগ। সে কারণে বিএনপির কর্মসূচির বিষয়ে অতীতের মতো কঠোরতা দেখাচ্ছে না ক্ষমতাসীনরা। বিরোধীদের সরাসরি বাধা না দিয়ে নিজেদের সভা-সমাবেশে শক্তি-সামর্থ্য দেখানোর পথে হাঁটবে তারা।

দলের নীতিনির্ধারণী পর্যায়ের কয়েকজন নেতার সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, জাতীয় নির্বাচনের এত আগেই বিএনপিকে কর্মসূচি পালন করতে না দিলে সরকার দেশে-বিদেশে সমালোচনার মুখে পড়তে পারে।

এর বদলে ডিসেম্বরে দলের জাতীয় সম্মেলন উপলক্ষে তৃণমূলে বড় জনসমাগমের মাধ্যমে নির্বাচনের মাঠ নিয়ন্ত্রণে রাখার পক্ষে আওয়ামী লীগের নীতিনির্ধারকরা।

গত দুই দিনে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির আটজন নেতার সঙ্গে কথা হয়। শনিবার রাজধানীতে ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে বড় জনসমাগমের মাধ্যমে কী অর্জন হলো, কাদের উদ্দেশে কী বার্তা দেওয়া হলো—এসব প্রশ্নের উত্তর দেন ওই নেতারা। তাঁরা জানান, সম্প্রতি রাজনীতির মাঠে একতরফা শক্তি দেখাচ্ছিল বিএনপি।

আওয়ামী লীগের শনিবারের সমাবেশের মধ্যে দিয়ে তার একটা ভালো জবাব দেওয়া হয়েছে। দেশব্যাপী দলের নেতাকর্মীরা চাঙ্গা হয়েছেন।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কাজী জাফর উল্যাহ কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আওয়ামী লীগ চায় সব দলের অংশগ্রহণে একটি সুষ্ঠু নির্বাচন। সে জন্য বিএনপিকে আমরা এক প্রকার সহায়তাই করে যাচ্ছি, যেন তারা মাঠে থাকে। তারা যেহেতু মূল বিরোধী দল, সে কারণে আমরা আন্তরিকভাবেই চাই তারা নির্বাচনে থাকুক। এতে দেশে-বিদেশে নির্বাচন গ্রহণযোগ্যতাও পাবে। ’

আওয়ামী লীগের একাধিক সূত্র জানায়, এবার বিএনপির অংশগ্রহণে একটি সুষ্ঠু নির্বাচন আয়োজনে অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক চাপ রয়েছে। তবে বিএনপির এসব কর্মসূচি নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করা হবে। কোনোভাবেই যেন সহিংসতার দিকে না যায় সেদিকে খেয়াল রাখা হবে। নির্বাচনকালীন সরকারের দাবিতে নির্বাচনের আগে অরাজকতা তৈরির চেষ্টা করা হলে তা দমনে কঠোর হবে সরকার।

সরকারি দলটি কি বিএনপির পাল্টা কর্মসূচি দিচ্ছে, জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কাজী জাফর উল্যাহ  বলেন, ‘আসলে এটা ভুল বিশ্লেষণ। ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনের কর্মসূচি দেড় মাস আগে ঠিক করা হয়। দলের জাতীয় সম্মেলন সামনে রেখে দেশের বিভিন্ন এলাকায় এ রকম আরো কর্মসূচি ঠিক করা আছে। আগামী ৩ নভেম্বর কুমিল্লায় আমাদের সমাবেশ আছে। এখন এটাকে তো পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি বলা যাবে না। ’

একাধিক সূত্র জানায়, নভেম্বর থেকে জেলা, উপজেলা পর্যায়ে বড় ধরনের সমাবেশ আয়োজন শুরু করবে আওয়ামী লীগ। জেলা, মহানগর, উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন, বর্ধিত সভা, জনসভা আয়োজন করা হবে। এসব কর্মসূচিতে দলের কেন্দ্রীয় নেতারা অংশ নেবেন।

আগামী ১১ নভেম্বর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে যুবলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে যুব মহাসমাবেশে বড় জমায়েতের লক্ষ্য। এ সমাবেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উপস্থিত থাকবেন। ৪ ডিসেম্বর চট্টগ্রামে ১০ লাখ লোকের সমাবেশের লক্ষ্য ঠিক করেছে আওয়ামী লীগ। সেই সমাবেশেও দলীয় সভাপতি অংশ নেবেন। ডিসেম্বরে খুলনা ও কক্সবাজারের বড় সমাবেশে শেখ হাসিনার উপস্থিত থাকার সম্ভাবনা রয়েছে।

খুলনা ও বরিশাল বিভাগের একাধিক জেলায় নভেম্বর মাসেই কর্মসূচি পালনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। নভেম্বরে কুমিল্লা জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। এর আগে ৫ নভেম্বর কুমিল্লা আদর্শ উপজেলা, ৯ নভেম্বর মনোহরগঞ্জ উপজেলা, ১০ নভেম্বর লাকসাম উপজেলা, ১২ নভেম্বর নাঙ্গলকোট উপজেলা সম্মেলনে বিপুলসংখ্যক নেতাকর্মীকে উপস্থিত করার চেষ্টা করা হবে।

আজ মঙ্গলবার সিরাজগঞ্জের কাজীপুর উপজেলায় জেলহত্যা দিবস উপলক্ষে সমাবেশে অংশ নেবেন আওয়ামী লীগের কয়েকজন কেন্দ্রীয় নেতা। এ সমাবেশে ১৫ হাজার লোক উপস্থিত রাখার লক্ষ্য নেওয়া হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রীর সময় পেলে সহযোগী সংগঠনগুলোর সম্মেলন

আগামী ২৪ ডিসেম্বর আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলনের আগেই সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনের সম্মেলন হবে। এর মধ্যে আছে ছাত্রলীগ, যুব মহিলা লীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ, স্বাধীনতা চিকিৎসক ফোরাম, বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ, মৎস্যজীবী লীগ, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলন। এসব সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার জন্য আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার সময় চাওয়া হয়েছে। তিনি সময় দিলেই সম্মেলনের তারিখ ঘোষণা করা হবে। আগামী ডিসেম্বরে এ সম্মেলনগুলো অনুষ্ঠিত হওয়ার সম্ভাবনা বেশি।

আরও পড়ুন

মতামত দিন

আমাদের সম্পর্কে

We’re a media company. We promise to tell you what’s new in the parts of modern life that matter. Lorem ipsum dolor sit amet, consectetur adipiscing elit. Ut elit tellus, luctus nec ullamcorper mattis, pulvinar dapibus leo. Sed consequat, leo eget bibendum Aa, augue velit.