Home » বিশ্বকাপে চক্রান্তের অভিযোগ পাকিস্তানের!

বিশ্বকাপে চক্রান্তের অভিযোগ পাকিস্তানের!

0 মন্তব্য 61 ভিউজ

চলতি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম দুই ম্যাচে হেরেও অবিশ্বাস্যভাবে সেমিফাইনালে উঠেছে পাকিস্তান। দক্ষিণ আফ্রিকাকে নেদারল্যান্ডস হারিয়ে দেওয়ার ফলেই শেষ চারের দরজা খুলে গিয়েছে তাদের সামনে।

এদিকে, সেমিফাইনালে উঠেই চক্রান্তের অভিযোগ তুলেছিলেন পাক বোর্ড প্রধান রমিজ রাজা। এবার একই সুর পাকিস্তান দলের উপদেষ্টা ম্যাথু হেডেনের গলায়। ঘুরিয়ে তিনি ভারত-সহ একাধিক দেশকে এক হাত নিয়েছেন।

গতকাল রবিবার জয়ের পর আইসিসির টুইটারে হেডেন বলেছেন, ‘আমরা খুব সহজে এখানে আসিনি। নেদারল্যান্ডস না থাকলে এখানে আসতেই পারতাম না। কিন্তু পৌঁছাতে পেরেছি এটাই সবচেয়ে বড় ব্যাপার। কেউ চায়নি আমরা এখানে আসি। আমরা সেমিফাইনালে আসায় অনেকেই চমকে গিয়েছে। সেটাই আমাদের সবচেয়ে বড় শক্তি।’

গতকাল রবিবার জয়ের পর আইসিসির টুইটারে হেডেন বলেছেন, ‘আমরা খুব সহজে এখানে আসিনি। নেদারল্যান্ডস না থাকলে এখানে আসতেই পারতাম না। কিন্তু পৌঁছাতে পেরেছি এটাই সবচেয়ে বড় ব্যাপার। কেউ চায়নি আমরা এখানে আসি। আমরা সেমিফাইনালে আসায় অনেকেই চমকে গিয়েছে। সেটাই আমাদের সবচেয়ে বড় শক্তি।’

প্রসঙ্গত, পাকিস্তান শেষ চারে জায়গা করে নেওয়ার পরে রমিজ টুইটে লেখেন, ‘ওরাও পরিকল্পনা করে। ঈশ্বরও পরিকল্পনা করেন। আর ঈশ্বর সবার থেকে ভালো পরিকল্পনা করেন।’

এবারের বিশ্বকাপে ভারতের পক্ষে ‘ষড়যন্ত্র’ নিয়ে পাকিস্তান ও বাংলাদেশের প্রাক্তন ক্রিকেটাররা বার বার অভিযোগ করেছেন। তাদের অভিযোগ, ভারতকে বাড়তি সুবিধা দেওয়া হচ্ছে। রোহিত শর্মারা যাতে বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে সহজে উঠতে পারেন সেই রাস্তা পাকা করে দিয়েছে আইসিসি। টেনে খেলানো হচ্ছে ভারতকে। সেই অভিযোগকারীদের মধ্যে রামিজও ছিলেন। দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে ভারতের হারের পরে তিনি রোহিত শর্মাদের খেলার মানসিকতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন। পাকিস্তান সেমিফাইনালে উঠতেই সেই বিতর্ক আরও বাড়িয়ে দেন রমিজ।

হেডেন অবশ্য চক্রান্তের কথা বলেই থামেননি। কোনো মতে সেমিফাইনালে উঠেও বাকি দলগুলিকে হুঁশিয়ারি পাঠিয়েছেন। বলেছেন, ‘আমরা বিপজ্জনক দল। সেটা বুঝুন এবং তারিফ করুন। পাকিস্তানের ক্রিকেটাররা রেগে গিয়ে দাঁত-নখ বের করলে বাকিরা বিপদে পড়ে যাবে। এই বিশ্বে এবং এই প্রতিযোগিতায় কেউ আমাদের বিরুদ্ধে এখন খেলতে চাইবে না।’

বাবরদের চাঙ্গা করতে হেডেন বলেছেন, ‘আগামী দু’দিনে নিজেদের মন থেকে সব মুছে ফেল। যে ম্যাচেই আমরা খেলি, তরতাজা হয়ে মাঠে নামো এবং ইতিবাচক ক্রিকেট খেলো। ভয়ডরহীন ক্রিকেট যা কেউ কোনোদিন ভুলতে পারবে না। গত তিন সপ্তাহে কী হয়েছে কারওর মনে রাখার দরকার নেই। একটা দারুণ দিন গোটা জীবনটাকে বদলে দিতে পারে।’

আরও পড়ুন

মতামত দিন

আমাদের সম্পর্কে

We’re a media company. We promise to tell you what’s new in the parts of modern life that matter. Lorem ipsum dolor sit amet, consectetur adipiscing elit. Ut elit tellus, luctus nec ullamcorper mattis, pulvinar dapibus leo. Sed consequat, leo eget bibendum Aa, augue velit.